Tue. May 11th, 2021
এক হাসিনার পরির্বতে জেল খাটছেন আরেক হাসিনা

অপরাধ না করেও শুধু নামের একাংশ মিল থাকায় মাদক মামলায় দেড় বছর ধরে সাজা ভোগ করছেন হাসিনা বেগম নামে এক নারী। নামের প্রথম অংশ মিল ছাড়া দুজনের মধ্যে অনেক তথ্য অমিল থাকা সত্ত্বেও টেকনাফ থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। আর মা হাসিনা বেগম গ্রেফতার হওয়ার তিন সন্তানকে ফেলে চলে গেছেন বাবাও। এতে পুরো পরিবারই বিপর্যস্ত।

কারাগারের ছবিতে দেখা যায় ৩ বছর আগে মাদকসহ গ্রেফতার হওয়া হাসিনা আক্তারের দুই শিশুসন্তান। আর তার বয়স ২৬ বছর। কিন্তু এ মাদক মামলায় রায় ঘোষণার পর টেকনাফ থানা পুলিশ যাকে গ্রেফতার করে তার নাম হাসিনা বেগম। ৪০ বছর বয়সী এ নারীর তিন সন্তান রয়েছে।

অথচ টেকনাফ থানা পুলিশ সাজাপ্রাপ্ত আসামির নামের প্রথম অংশের সঙ্গে মিল পেয়েই তাকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়।

আবেদনকারী আইনজীবী গোলাম মওলা মুরাদ বলেন, নিরীহ ওই নারীকে (হাসিনা বেগম) যেন মুক্তি দেওয়া হয় এ মর্মে আমরা আদালতের কাজে একটা আবেদন করেছি। যেহেতু জেলখানায় আগের এবং পরের দুই নারীরই ছবি আছে। এ দুটো পর্যক্ষেণ করে একটা প্রতিবেদন দিলে আমরা আশা করছি সে মুক্তি পাবে।         

নথিপত্র পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, ২০১৭ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামের কর্ণফুলী মইজ্যার টেক এলাকা থেকে পুলিশ ইয়াবাসহ হাসিনা আক্তারকে তার স্বামী এবং দুই শিশু সন্তানসহ গ্রেফতার করে। কিন্তু ৯ মাস পর তারা জামিনে এসে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে এ মামলায় আদালতে ৬ বছরের সাজা ঘোষণা করলে টেকনাফ থানা পুলিশ ২০১৯ সালের ১৬ ডিসেম্বর হাসিনা বেগমকে গ্রেফতার করলে তার পরিবারে বিপর্যয় নেমে আসে।

ভুলে গ্রেফতার হওয়া হাসিনার সন্তান শামীম নেওয়াজ বলেন, আমার ছোট বোনটা নানীর কাছে থাকে বড় বোনটা মানুষের বাসায় কাজ করে এভাবেই আমাদের জীবন চলছে।

এদিকে, আদালতের নির্দেশে রোববার টেকনাফ থানা পুলিশের জমা দেয়া এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে কারাগারে থাকা হাসিনা বেগম প্রকৃত আসামি নয়। এ অবস্থায় প্রকৃত আসামি শনাক্তে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের কাছে প্রতিবেদন চেয়েছে আদালত।

মহানগর দায়রা জজ আদালতের অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট তসলিম উদ্দিন বলেন, স্বামীর নামসহ সবকিছু লিখা থাকে, আসামি হাসিনা আক্তার দেখছে আর তার বাবার নামের সঙ্গে নাম মিল আছে এ কারণে ধরে ফেলেছে পুলিশ।    

আইনজীবীদের মতে, টেকনাফ থানা যেমন নামের মিল পেয়েই ভুল ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে তেমনি কারা কর্তৃপক্ষও পূর্বের ছবি যাচাই না করে সমান অপরাধ করেছে।

By HerNet

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *