Sat. Sep 25th, 2021
পর্ন ছবি বানানোর অভিযোগে শিল্পা শেঠির স্বামী গ্রেপ্তার |HerNet News

পর্নো ছবি বানানোর অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলিউড তারকা শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রাকে। গতকাল সোমবার রাতে মুম্বাই পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করেছে। শিল্পার স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ- পর্নো ছবি বানিয়ে তিনি তা বিশেষ অ্যাপের মাধ্যমে মোবাইল নেটওয়ার্কে ছড়িয়ে দিতেন। একই মামলায় ইতিমধ্যে পুলিশের জালে নয় ভারতীয় ধরা পড়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস ও হিন্দুস্থান টাইমস বলছে- পর্নোগ্রাফি সিনেমা তৈরি এবং বিভিন্ন অ্যাপের মাধ্যমে তা প্রকাশ করা নিয়ে গত ফেব্রুয়ারিতে একটি মামলা করেছিল মুম্বাই পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ। মুম্বাই পুলিশের একটি বিবৃতিতে বলা হয়, তদন্তের পর তারা রাজ কুন্দ্রাকে গ্রেপ্তার করেছে। তিনি এ মামলায় মূল ষড়যন্ত্রকারী বলে মনে করছে পুলিশ।

আর বিষয়ে পুলিশের কাছে যথেষ্ট প্রামাণ রয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির গণমাধ্যম। গতকাল সোমবার রাজ কুন্দ্রাকে ডেকে পাঠায় মুম্বাই পুলিশ। রাত আটটায় তিনি সেখানে হাজিরা দেন। জিজ্ঞাসাবাদের পর তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশের একটি সূত্র বলছে, একই মামলায় আগেই উমেশ কামাত নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। উমেশ নিজের বয়ানে দাবি করেছেন, তিনি রাজ কুন্দ্রার সংস্থায় কাজ করতেন। উমেশ মুম্বাইয়ের ভাসি এলাকায় থাকেন। গত ৬ ফেব্রুয়ারি গ্রেপ্তার হওয়া এক মডেল ও অভিনেত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের সময় উমেশের নাম উঠে এসেছিল।

ব্রিটেনের একটি সংস্থায় সমন্বয়কারী হিসেবে কাজ করতেন উমেশ। তিনি ওই মডেলের থেকে অশ্লীল ভিডিও নিতেন। সেগুলো পাঠিয়ে দিতেন ব্রিটেনের ওই সংস্থার কাছে। তারপর সেই ভিডিওগুলো একটি অ্যাপে আপলোড করা হতো।

গত ৪ ফেব্রুয়ারি পর্নো ছবি তৈরির সেই চক্রের কীর্তি ফাঁস হয়েছিল পুলিশের কাছে। সে সময় মুম্বাইয়ের একটি বাংলোয় অভিযান চালিয়ে ওয়েব সিরিজ ও শর্টফিল্মে কাজ দেওয়ার নামে তরুণ-তরুণীদের ফাঁসানোর অভিযোগে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল, যাঁরা ওই তরুণ-তরুণীদের পর্নো ছবিতে অভিনয় করতে বাধ্য করতেন।

উল্লেখ্য, বলিউডের অভিনেত্রী শিল্পা শেঠি ২০০৯ সালে বিয়ে করেন শিল্পপতি রাজ কুন্দ্রাকে। বিলাসবহুল জীবনযাপন তাঁদের। এ দম্পতির দুই সন্তান রয়েছে। ২০১৩ সালে মৃত গ্যাংস্টার ইকবাল মির্চির সঙ্গে অর্থ পাচার কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকার অভিযোগ ছিল রাজ কুন্দ্রার বিরুদ্ধে।

By HerNet

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *