Tue. May 11th, 2021
মায়ের দেশ ভারতের পাশে থাকার কথা বললেন কামালা

নতুন ধরনের করোনায় বিপর্যস্ত ভারত। পাশে দাঁড়িয়েছে বন্ধুদেশ যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে থাকা ভারতীয়রাও সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে নিজ দেশের এ অবস্থায়। পাশাপাশি বিশ্বের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন ভারতীয় প্রবাসীরা।

কোভিড যুদ্ধে নাকাল ভারতের পাশে থাকা মিত্র যুক্তরাষ্ট্র। তবুও বাড়িয়ে দিয়েছে মানবিকতার হাত। যুক্তরাষ্ট্র ভুলে যায়নি, ২০২০ সালে মহামারির প্রথমদিকে মার্কিন হাসপাতালগুলো চাপে পড়লে ভারত যেভাবে সহায়তা পাঠিয়েছিল সে কথা।

করোনার প্রথম ঢেউয়ের সময় যুক্তরাষ্ট্রের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প-ভারতের কাছে হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন পাঠানোর আবেদন করেন। সঙ্গে সঙ্গে সাড়া দেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের নির্দেশে ভারতীয়দের সহায়তায় দৃঢ় প্রতিজ্ঞ মার্কিন প্রশাসন পাঠিয়েছে বিশেষজ্ঞ দল। দেয়া হয়েছে ওষুধ, অক্সিজেন ও আইসিইউ। পাঠানো হয়েছে ভ্যাকসিন তৈরির কাঁচামালও। সংকটে ভারতের সব রকম চাহিদা পূরণ করছে ডেমোক্র্যাট সরকার।

মার্কিন মুলুকে প্রবাসী ভারতীয়রাও নিজ নিজ অবস্থান থেকে কিছু করার চেষ্টা করছেন। তারা তৈরি করছেন সহায়তা ফান্ডও।

লস অ্যাঞ্জেলসে থাকা এক ভারতীয় নাগরিক ঘনশ্যাম চেজার, হাতজোর করে ভারতের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান। ধুঁকতে থাকা ভারতের চিত্র দেখে যে কারো হৃদয়ে বেদনার ক্ষত তৈরি হবে। মাতৃভূমি ভারত বিশেষ করে মায়ের বাড়ি তামিলনাড়ুর দিকে তাকিয়ে আর্তমানবতার সেবায় ভারতের পাশে দাঁডাচ্ছেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কামালা হ্যারিস।

মার্কিন অর্থনীতিতে বাংলাদেশিদের পাশাপাশি ভারতীয়দের অবদান অনস্বীকার্য। বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে বিপুলসংখ্যক ভারতীয়দের বাস। করোনা সংকট কেটে গেলে দেশটিতে সফরে যাওয়ার কথাও রয়েছে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও তার ডেপুটি কামালা হ্যারিসের।

আক্রান্তে দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত সংক্রমিত হয়েছেন এক কোটি ৭৯ লাখ ৮৮ হাজার ৬৩৭ জন। মারা গেছেন ২ লাখ এক হাজার ১৬৫ জন।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, বুধবার (২৮ এপ্রিল) সকাল পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা গেছেন ১৪ হাজার ৮২১ জন এবং নতুন করে ৮ লাখ ৩০ হাজার ৮২২ জনের শরীরে এই ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে বিশ্বে মোট করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩১ লাখ ৪৮ হাজার ৭৮১ জনের এবং আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ কোটি ৯৩ লাখ ২৮ হাজার ৮৫৮ জন। এ ছাড়া সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১২ কোটি ৬৯ লাখ ৮২ হাজার ১৩৭ জন।

By HerNet

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *