Sat. Jan 23rd, 2021
স্বামীর বিয়ের জন্যে চতুর্থ পাত্রী

বর্তমান বিশ্বে আইন অত্যন্ত কঠিন। এ কারণে প্রথম স্ত্রীর অনুমতি না নিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করা যায় না। এরপরেও স্বামী দ্বিতীয় বিয়ে করতে চাইলেও প্রথম স্ত্রী সঙ্গতকারণেই অনুমতি দিতে চান না। সেখানে কি-না স্বামীর চতুর্থ বিয়ের আয়োজনে পাত্রী খুঁজচ্ছেন তার তিন স্ত্রী! শুনতে অবিশ্বাস্য মনে হলেও পাকিস্তানে ঘটেছে এমন অবাক করার ঘটনা ।

দেশটির গণমাধ্যম ডেইলি পাকিস্তান জানায় , ২২ বছর বয়স্ক ওই ব্যক্তির নাম আদনান। তিনি পাকিস্তানের শিয়ালকোটের বাসিন্দা। মাত্র ১৬ বছর বয়সে ছাত্রাবস্থাতেই প্রথম বিয়ে হয় তার। প্রথম স্ত্রী সম্বলের সঙ্গে বেশ সুখেই দিন কাটছিল। তা সত্ত্বেও চার বছর কাটতে না কাটতেই দ্বিতীয় বিয়ের কথা ভাবেন তিনি। যেমন ভাবনা তেমনই কাজ। দ্বিতীয়বার বিয়ের পিঁড়িতে বসেন তিনি। বাড়িতে নিয়ে আসেন শাবানাকে।

গত বছর তৃতীয় বিয়ে সেরেছেন পাকিস্তানি এই যুবক। শাহিদা নামের এক নারী হয়েছেন তার তৃতীয় স্ত্রী। বর্তমানে পাঁচ সন্তানের বাবা আদনান। প্রথম স্ত্রীর তিনটি, দ্বিতীয় স্ত্রীর একটিই সন্তান। তবে দ্বিতীয় স্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে একটি সন্তান দত্তকও নিয়েছেন আদনান। তৃতীয় স্ত্রীর কোনো সন্তান নেই। এবার চিন্তা করেছেন চতুর্থ বিয়ের।

তবে আদনানের একটাই শর্ত-চতুর্থ স্ত্রীর নামের আদ্যক্ষর হতে হবে ‘স’ বা ‘শ’। এটা বাদে পাত্রী দেখার ক্ষেত্রে আর কোনো পছন্দ-অপছন্দ নেই পাঁচ সন্তানের বাবা আদনানের।

তবে সবচেয়ে অবাক করার বিষয় হলো-আদনানের চতুর্থ স্ত্রী খুঁজে দেয়ার দায়িত্বটা নিয়েছেন তার তিন স্ত্রী। তারাই নাকি স্বামীর মন বুঝে পছন্দমতো হবু বউ খোঁজার চেষ্টা করছেন।

পাকিস্তানি দৈনিক ডেইলি পাকিস্তানকে আদনান বলেছেন, তার তিন স্ত্রী থাকলেও দাম্পত্য জীবনে তিনি সুখী। কারোর প্রতি কারোর অভিযোগ নেই। 

তিন স্ত্রী নিয়ে সুখে-শান্তিতে থাকলেও খরচ কিন্তু কম হয় না আদনানের। এজন্য প্রতি মাসে তার হাত থেকে চলে যায় অর্ধলাখ রুপি। তবে খরচকে পরোয়া করেন না আদনান। তার দাবি, প্রথম বিয়ের পর থেকেই নাকি তার কপাল খুলতে শুরু করেছে আদনানের।

এদিকে ডেইলি পাকিস্তানে দেয়া আদনান ও তার তিন স্ত্রীর সাক্ষাতকার এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল। ইউটিউবে প্রায় ২৫ লাখ বার এই সাক্ষাতকারের ভিডিওটি দেখেছে নেটিজেনরা।

By HerNet

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *