Sat. Jan 16th, 2021

পালনগর গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে।

অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আবুল কালাম পেশায় একজন কাঠমিস্ত্রি। ধর্ষণের শিকার বাক প্রতিবন্ধী ওই নারীর বড় ভাইও একজন কাঠ মিস্ত্রি হওয়ার সুবদে তাদের বাড়িতে যাওয়া আসা ছিল আবুল কালামের। এ অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে আবুল কালাম প্রতিবন্ধী ওই নারীকে ঘরে ঢুকে ধর্ষণ করতে থাকে। এসময় তার মা পাশের ঘর থেকে মেয়ের গোঙানীর শব্দ শুনতে পেয়ে ওই ঘরে প্রবেশ করে আবুল কালামকে আটকের চেষ্টা করে। এসময় অবস্থা বেগতিক দেখে মা ও মেয়েকে ধাক্কা মেরে ফেলে ঘর থেকে সটকে পড়ে কালাম। পরদিন ইউপি সদস্য ও গ্রাম পুলিশের সহযোগিতায় গ্রাম্য মাতব্বরদের নিয়ে এ বিষয়ে সালিস বৈঠক চলাকালে কৌশলে সেখান থেকেও পালিয়ে যায় আবুল কালাম। সংবাদ পেয়ে শুক্রবার রাত ৮টার দিকে ধর্ষণের শিকার মেয়েটিকে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার রাতেই ভুক্তভোগী ওই নারীর মা বাদী হয়ে ধুনট থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা জানান, ধর্ষণের শিকার প্রতিবন্ধী ওই নারীর শারীরিক পরীক্ষার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে পাঠানো হয়েছে। মামলার আসামি আবুল কালামকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

By HerNet

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *