Fri. Jan 22nd, 2021
ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলায় শিক্ষক গ্রেফতার

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে কোচিং সেন্টারে আটকিয়ে ৭ম শ্রেণিরি এক ছাত্রীকে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি পলাতক শিক্ষক তারেকুর রহমান চৌধুরীসহ দুই আসামিকে চট্টগ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) দুপুরে চৌদ্দগ্রাম থানার এসআই ত্রিনাথ সাহার নেতৃত্বে চট্টগ্রামের ডাবলমুড়িং থানার মিস্ত্রীপাড়া এলাকা থেকে তারেকুর রহমান চৌধুরী ও তার ভাই তৌহিদুর রহমান চৌধুরীকে গ্রেপ্তার করা হয়। 

চৌদ্দগ্রাম থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শুভ চাকমা এ তথ্য নিশ্চিত করেন। 

জানা যায়, চৌদ্দগ্রামের আলকরা ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুর গ্রামের হতদরিদ্র পরিবারের ৭ম শ্রেণীতে পড়ুয়া কিশোরীকে পড়ানোর নামে ধর্ষণ করে তারেক নামে কোচিং সেন্টারের ওই শিক্ষক। প্রথম দিনের ঘটনার ভিডিও ধারণ করে রেখে ভয় দেখি পরে বহুবার ধর্ষণ করা হয় কিশোরীকে। এরই মধ্যে মেয়েটি গর্ভবতী হয়ে পড়লে জানাজানি হয় পরিবারে। সামাজিক মীমাংসায় বিয়ের নামে এক বছর পেরিয়ে গেলেও স্ত্রীর মর্যাদা পায়নি ওই কিশোরী। নবজাতক পুত্র সন্তানের দেখাশোনাও করতে আসে না অভিযুক্ত ওই শিক্ষক।

সামাজিক মীমাংসায় বিয়ের আশ্বাসে এক বছর পেরিয়ে গেলেও স্ত্রী ও নবজাতক সন্তানের মর্যাদা পায়নি ওই পুত্র সন্তানের জননী। এরপর তারেকুর রহমানের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করে ভিকটিমের বাবা। 

গত ৪ অক্টোবর কুমিল্লার নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালের বিচারক রফিকুল ইসলামের আদালতে কোচিংয়ের শিক্ষক তারেকসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেন ভিকটিমের বাবা। তারেক বাদে অন্য অভিযুক্তরা সালিশের নামে ভিকটিমের পরিবারকে হয়রানি করেছে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়।

By HerNet

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *