Sat. Jan 16th, 2021
ধোনির মেয়েকে ধর্ষণের হুমকিদাতা চিহ্নিত

গত কয়দিন ধরেই ধর্ষণকাণ্ডে উত্তাল ভারত। দেশটির উত্তরপ্রদেশের এক দলিত মেয়েকে গণধর্ষণ করে হত্যার পর মূলত শুরু হয় আন্দোলন। এর মধ্যেই ভারতের বিশ্বকাপজয়ী সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির পাঁচ বছর বয়সী কন্যাশিশুকে ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হয়েছে। সেই ধর্ষণের হুমকিদাতাকে চিহ্নিত করেছে পুলিশ।

ধর্ষণের হুমকিদাতা একজন কিশোর।  তার বাড়ি ভারতের গুজরাট রাজ্যে। অভিযুক্ত নাবালক হওয়ায় তাকে গ্রেপ্তার বা আটক করা হয়নি। ধোনির মেয়ে জিভাকে ধর্ষণের হুমকি দিয়ে ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছিল বলে স্বীকার করেছে অভিযুক্ত কিশোর। ঘটনাটি ঘটে আইপিএলের ম্যাচে যখন ধোনির দল চেন্নাই সুপার কিংস (সিএসকে) কলকাতা নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) বিপক্ষে হেরে যায় তারপরে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামে এই হুমকি দেওয়া হয়। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এবিপি আনন্দ এক প্রতিবেদনে ঘটনাটি তুলে ধরে।

সিএসকে অধিনায়ক ও তার স্ত্রী সাক্ষী ধোনির ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে তাদের শিশুকন্যাকে ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হয়। কেকেআরের দেওয়া ১৬৮ রানের টার্গেট ছুতে না পারায় ধোনিকে নিয়ে প্রবল সমালোচনা হয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। এই রোষ থেকে রেহাই পায়নি ধোনির কন্যা জিভাও।

সেই ম্যাচে ধোনি ১২ বলে মাত্র ১১ রান করে সাজঘরে ফেরেন। শেষে ২১ বলে ৩৯ রান দরকার ছিল চেন্নাইয়ের। এরপরই চেন্নাই ভক্তদের টার্গেট হন ধোনি। ধোনিকে তুমুল ট্রোলিং করা হয় ফেসবুক, টুইটারে। ধোনির মেয়েকে শারীরিক নিগ্রহ, এমনকী ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হয়।

সম্প্রতি আইপিএলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর (আরসিবি) অধিনায়ক বিরাট কোহলির ব্যাটে রান না আসায় অন্যায়ভাবে আঙুল তোলা হয় তার স্ত্রী অভিনেত্রী আনুষ্কা শর্মার দিকে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কটাক্ষ, বিদ্রূপ করা হয় তাকে। এমনকি সুনীল গাভাস্কারের মতো ক্রিকেট ব্যক্তিত্বের বিরাট, অনুষ্কা সম্পর্কে করা মন্তব্যেও বিতর্কের ঝড় ওঠে।

তবে এ ধরনের লোকজনের মানসিক সুস্থতা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন ভারতের সাবেক ক্রিকেটার ইরফান পাঠান। তিনি টুইট করেছেন, ‘হতেই পারে, ক্রিকেটারদের সেরাটা সবদিন মাঠে দেখা যায় না, কিন্তু তা বলে কারও একটা বাচ্চাকে শাসানোর, হুমকি দেওয়ার অধিকার নেই। সব ক্রিকেটারই তাদের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করে, কিন্তু সব দিন সমান ভালো খেলা যায় না। কিন্তু সেজন্য একটা শিশুকে হুমকি দিতে পারে না কেউ!’

By HerNet

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *